প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ, সার ও কৃষি সেচ ভর্তুকি প্রদান করেন এপি মতিন খসরু

19 এপ্রিল

কুমিল্লার ব্রা‏হ্মণপাড়ায় গতকাল ১৯ এপ্রিল শুক্রবার আউশ ধান চাষে প্রনোদনা ২০১৩ উপলক্ষ্যে উপজেলা কৃষি অফিসের উদ্যোগে ১৪৪০ জন কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ করেন সাবেক আইন মন্ত্রী এড. আবদুল মতিন খসরু এমপি। এসময় উপসি’ত ছিলেন ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আজিজুর রহমান, কৃষি কর্মকর্তা মো: কবির হোসেন সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, উপজেলার বিভিন্ন স’ান আসা প্রান্তিক কৃষক এবং এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। এসময় ১৪৪০জন কৃষকের প্রত্যেককে ২০ কেজি ইউরিয়া, ১০ কেজি ডিএপি, ১০ কেজি এমওপি ও ৫ কেজি উফশী আউশ ধান বীজ সহায়তা
প্রদান করা হয় এবং তাদের একাউন্টে ৩০০ টাকা করে সেচ সহায়তা প্রদান করা হবে বলে আশ্বাস প্রদান করা হয়। ১৮ এপ্রিল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাজী জাহাঙ্গীর খান চৌধুরী এই বিতরণ কার্য্যক্রমের উদ্বোধন করেন। ইতমধ্যে অনেক ইউনিয়নের মাঝে বিতরণ সমাপ্ত হয়েছে, বাকীদের ক্রমান্বয়ে দেয়া হবে বলে জানান কৃষি কর্মকর্তা। কৃষকদের সার্বিক সহায়তার আশ্বাস দিয়ে এলাকার এমপি মতিন খসরু বলেন পৃথিবী যতই উন্নত হোক, খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্ন না হলে স্বাবলম্বি হতে পারবে না। আমাদের দেশের জলবায়ূ কৃষির জন্য অত্যন্ত উপযোগী। আমাদের মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর দূরদর্মী চিন্তাধারার বহি:প্রকাশ হিসেবে কৃষকদের মাঝে এই নিয়ে ৫বার বিনামূলে সার, বীজ সহ কৃষি সেচ সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। আপনারা যথাসময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে সকলে কৃষি কাজে এগিয়ে আসলে আমাদের দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্ন হতে পারবে বলে আমার বিশ্বাস। এসময় কৃষি কর্মকর্তা বলেন, যে কোন সময় উপজেলা কৃষি অফিসে কৃষি প্রযুক্তি এবং কৃষকদের নানা সমস্যার সমাধান দ্রুততার সাধে দেয়া হয়। আপনারা যথাসময়ে পরামর্শ নিয়ে কৃষি কাজে উদ্বোগী হলে দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্ন হতে পারবে # মিজান, আলীম ও নয়ন #

নিমসার জুনাব আলী কলেজের বার্ষিক ক্রীড়ার পুরস্কার বিতরণ

19 মার্চ
কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার নিমসার জুনাব আলী কলেজের উদ্যোগে গত ১৬ মার্চ কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সাবেক আইন মন্ত্রী এডঃ আব্দুল মতিন খসরু এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ সাজ্জাদ হোসেন ও কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য আলহাজ্ব নুরুল ইসলাম বাচ্চু। অধ্যক্ষ মোঃ মোনাব্বের হোসেনের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন উপাধ্যক্ষ এহতেশাম হায়দার চৌধুরী,  আব্দুল ওহাব মাস্টার, এডঃ মোবারক হোসেন,

অধ্যাপক রফিকুল আলম,  সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহের। অনুষ্ঠান পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন প্রভাষক লোকমান হাকিম ভুইয়া। এসময় অন্যাদের মধ্যে উপসি’ত ছিলেন উপজেলা যুবলীগের সহ সভাপতি মোঃ হেলাল উদ্দিন, মোকাম ইউনিয়ন যুবলীগের সেক্রেটারি হাজী মোঃ কবির হোসেন মেম্বার।

বুড়িচংয়ে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিবস ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত

18 মার্চ
গত ১৭ মার্চ বুড়িচং উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে  জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৩ তম জন্মদিবস ও জাতীয় শিশু দিবস ২০১৩ উদযাপন উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। কর্মসূচির মধ্য ছিল বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে সকাল ৯ টায় শিশু সমাবেশ ও র‌্যালী, শিশুদের চিত্রাংকন, রচনা ও উপসি’ত বক্তৃতা প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা এবং

সকল এতিম খানায় উন্নত মানের খাবার পরিবেশন। বুড়িচং উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ইউ এন ও মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খানের সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাদেরা পারভীন আক্তার। বক্তব্য রাখেন উপজেলা স্বাস’্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ জাকির হোসেন, উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা জেড এম মিজানুর রহমান খান, বুড়িচং আনন্দ পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ তাজুল ইসলাম, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ ইকবাল হাসান, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা পারভীন আক্তার, উপ সহকারি কৃষি কর্মকর্তা যথাক্রমে মামুনুর রশিদ ও মিজানুর রহমান,  উপজেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সেক্রেটারি আলী আকবর এবং সুপার মাওঃ জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ । আলোচনা সভা শেষে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অনুষ্ঠানের সভাপতি ইউ এন ও মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান ও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাদেরা পারভীন আক্তার। # জেহাদ হোসেন খোকন #

ব্রা‏হ্মণপাড়ায় আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে কেক কেটে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিবস উদযাপন

18 মার্চ
ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগ অফিসে গত ১৭ মার্চ কেক কেটে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৯৩তম জন্ম দিবস পালন করা হয়।এসময প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান হাজী জাহাঙ্গীর খান চৌধুরী, আওয়ামীলীগ যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা সারোয়ার খান, অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম, যুবদল যুগ্ন আহবায়ক জহিরুল ইসলাম, ইসরাফিল ভূইয়া, আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা আওয়ামীলীগ অফিসের দায়িত্বে থাকা রফিকুল ইসলাম খোরশেদ, আবুহেনা মোস্তফা শাহীন, ছাত্রলীগ সাবেক সহসভাপতি আলাউদ্দিন রিপন, বিল্লাল হোসেন সরকার, ছাত্রলীগ আহবায়ক আলী হোসেন,

গোলাম কিবরিয়া বিল্লাল, আবদুল জলিল, আবদুস সাত্তার, মোশাররফ হোসেন লিটন, রাশেদুল ইসলাম সহ উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীবৃন্দ। এসময় নেতাকর্মীরা বলেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেষ মুজিবুর রহমান ছিলেন বলিষ্ট নেতা। যার জন্ম না হলে বাংলাদেশ জন্ম হতো না। আমরা তার জন্মদিন উপলক্ষে কেক কেটে দিবসটি স্বরনীয় করে রাখার চেষ্টা করেছি। আমরা বঙ্গবন্ধুর আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। পাশাপাশি তার খুনীদের শাস্তি দ্রুত নিশ্চিত করার আহবান জানাচ্ছি।

ব্রা‏হ্মণপাড়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিবস ও জাতিয় শিশু দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা

18 মার্চ
কুমিল্লার ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেষ মুজিবুর রহমানের ৯৩তম জন্ম দিবস ও জাতিয় শিশু দিবস ২০১৩ উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ উপলক্ষে সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আজিজুর রহমানে নেতৃত্বে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শিক্ষার্থী ও উপজেলার বিভিন্ন অফিসের কর্মকর্তা এবং ব্রা‏হ্মণপাড়া থানা প্রশাসন সহ বিভিন্ন মহলের সমন্বয়ে একটি র‌্যালী উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পরিষদ প্রাঙ্গনে সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় দিবসের তাৎপর্য সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সহ অতিথিবৃন্দ। পরে

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্দ্যোগে উপজেলা মিলনায়মনে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এসময় চলমান বিশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দিক নির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখেন। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ব্রা‏হ্মণপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ উত্তম কুমার বড়-য়া, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সাহেদুল আলম চৌধুরী, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা তানজুমা পারভীন লুনা, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মুহাম্মদ শহীদুল করিম, শিক্ষক মো: আসাদ উল্লাহ, বিআরডিবি কর্মকর্তা গুলশানআরা আক্তার, প্রভাষক নাসির উদ্দিন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিদর্শক মাহবুবুর রহমান, উপজেলা প্রেস ক্লাব সভাপতি আবদুল আলীম খান সহ উপজেলার বিভিন্ন স’ান থেকে আগত ইমামগণ। এসময় বঙ্গবন্ধু শেষ মুজিবুর রহমানের জন্ম দিবস ও জাতিয় শিশু দিবস উপলক্ষে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। পরে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাঝে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়। তাদের মধ্যে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন আমন্ত্রীত অতিথিগণ # ইসমাইল নয়ন #

বুড়িচংয়ে দরিদ্র মা’র জন্য মাতৃত্বকাল ভাতা বিতরণ

17 মার্চ
গত ১৬ মার্চ কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের উদ্যোগে উপজেলার দরিদ্র মা’র জন্য মাতৃত্বকাল ভাতা বিতরণ করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সাবেক আইন মন্ত্রী এডঃ আব্দুল মতিন খসরু এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ সাজ্জাদ হোসেন। বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ভাতা বিতরণ অনুষ্ঠানের শুরুতে বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা পারভীন আক্তার। বক্তব্য রাখেন উপজেলা স্বাস’্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ মোঃ জাকির হোসেন ও মহিলা মেম্বার নাসরিন সুলতানা। সভা শেষে প্রত্যেক দরিদ্র মা’দের মাঝে ২ হাজার ১ শ টাকা করে ভাতা বিতরণ করেন অতিথি বৃন্দ। # জেহাদ হোসেন খোকন #

বুড়িচংয়ে সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

14 মার্চ
গত ১৩ মার্চ শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের উদ্যোগে কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলায় সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ প্রতিযোগিতা ২০১৩  বুড়িচং উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিযোগিতায় ভাষা ও সাহিত্য/ বিজ্ঞান ও  কম্পিউটার/ বাংলাদেশ স্টাডিজ বিষয়ে ৬ষ্ঠ-৮ম/৯ম-১০ম/ একাদশ- দ্বাদশ এই তিন গ্রুপে  উপজেলা পর্যায়ে বছরের সেরা মেধাবী হিসেবে প্রতি গ্রুপে ৪ জন করে মোট ১২ জন শিক্ষার্থী স্বীকৃতি লাভ করেছে। প্রতিযোগিতায় লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার হিসেবে  সনদ পত্র ও প্রতি জনে ১ হাজার টাকার প্রাইজ বন্ড বিতরণ করেন অনুষ্ঠানের  প্রধান অতিথি বুড়িচং উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ সাজ্জাদ হোসেন ।  সভাপতিত্ব করেন সৃজনশীল

মেধা অন্বেষণ প্রতিযোগিতা কমিটির আহবায়ক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান। বক্তব্য রাখেন কমিটির সদস্য সচিব ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ ইকবাল হাসান। প্রতিযোগিতায় বিচারক মন্ডলীর দায়িত্ব ছিলেন  উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা জেড এম মিজানুর রহমান খান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ ইকবাল হাসান, ইউ এর সির ইন্সট্রাক্টর মোঃ বেলাল হোসেন ও সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবদুল কুদ্দুস প্রধান। প্রতিযোগিতায় ৬ষ্ট-৮ম  শ্রেণি গ্রুপে নির্বাচিতরা হলো যথাক্রমে, ফাতেমা রহিম রিন্স, হেলালুর রহমান, সামিউল মুনতাছির সিয়াম, সাবিয়া আফরোজ মৌরী, ৯ম-১০ম শ্রেণি গ্রুপে নির্বাচিতরা হলো মোঃ শাখাওয়াত হোসেন, মোসাঃ পান্না আক্তার, ইরাম হোসেন ও ফজলে রাব্বি এবং একাদশ-দ্বাদশ গ্রুপে নির্বাচিতরা হলো সোনার বাংলা কলেজের শিক্ষার্থী যথাক্রমে মোঃ শরীফুল ইসলাম, মনিরুল ইসলাম, মোঃ রাকিব ভুইয়া ও উম্মে তাহিরা বিনতে তাজ। # জেহাদ হোসেন খোকন #

ব্রা‏হ্মণপাড়ায় আলেম ওলামা ও ধর্মপ্রাণ জনগনকে সচেতন থাকার আহবানে ইমামদের সাথে প্রশাসনের মতবিনিময় সভা

6 মার্চ
কুমিল্লার ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলায় আলোম ওলামা ও ধর্মপ্রাণ জনগনকে সচেতন থাকার আহবানে উপজেলা প্রশাসন ও ইসলামী ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্দ্যোগে ইমামদের সাথে প্রশাসন ও পুলিশের মতবিনিময় সভা গতকাল ৬ মার্চ উপজেলা চেয়ারম্যান কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আজিজুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাজী জাহাঙ্গীর খান চৌধুরী, পরিচালনা করেন ফিল্ড সুপারভাইজার মাহবুবুর রহমান, বিশেষ অতিথি ছিলেন ব্রা‏হ্মণপাড়া থানা অফিসার ইনচার্জ উত্তম কুমার বড়-য়া, অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মাজল আহাম্মদ খান, কুরআন তেলাওয়াত করেন হাফেজ মুকতাদিব আলী, নাতে রাসুল (দ:) মু. মনিরুল ইসলাম, বক্তব্য রাখেন মাওলানা আব্দুর রহমান- খতিব চান্দলা পদুয়া জামে মসজিদ, মো: ইলিয়াছ- খতিব এসপি বাড়ী মসজিদ, মাওলানা আবদুল লতিফ, মাওলানা ওয়ালীউল্লাহ ফয়েজী, মাওলানা সবুর খান চৌধুরী, মাওলানা আব্দুল্লাহ, মাওলানা আ খ ম আবদুল হান্নান,

মাওলানা মো: শহীদুল্লাহ, মাওলানা এ এস এম নুর মোহাম্মদ আল কাদরী। উপসি’ত ছিলেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সরকারী ভাবে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত উপজেলার ইমামগণ। এসময় বক্তারা বলেন ইসলাম অর্থ শান্তি, ইসলাম ধর্মে কখনো মানুষ হত্যা করা স্বীকৃতি দেয়না। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) বিদায় হজ্ব ভাষনে নিজ নিজ ধর্ম পালনের স্বাধীনতার কথা বলেছেন। অন্য ধর্মাভলম্বাীদের ধর্ম পালনে কোন বাধা দেননি। আমরা সেই শিক্ষা অনুকরন করে দেশ ব্যাপী নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে শান্তির পক্ষে ওলামা মাশায়েখরা এক হওয়ার আহবান জানাচ্ছি। ইসলামের বিরুদ্ধে যারা অপপ্রচার চালিয়ে বিভিন্ন দেশের ক্ষতি করছে তাদের প্রতি জনগনকে সচেতন থাকার আহবান জানিয়ে দেশে যেন আর কোন ধরনের ক্ষয় ক্ষতি না করতে পারে সেই বিষয়ে সকলকে স্বচ্ছার থাকার আহবান জানান।

ব্রা‏হ্মণপাড়ায় অগ্নিকান্ডে বসত ঘর ভস্মিভূত, ক্ষয় ক্ষতি ৪ লক্ষাধিক টাকা

5 মার্চ
কুমিল্লার ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের বাড়ানী গ্রামে ৫ মার্চ গভীর রাতে একটি বাড়ীতে অগ্নিকান্ডে ৪ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করেছে ক্ষতিগ্রস্তরা।
    জানা গেছে বাড়ানী গ্রামের মৃত সোনা মিয়ার ছেলে রুকু মিয়া বাড়ীতে গভীর রাতে অগ্নোৎপাত হয়। এ ব্যাপারে বাড়ীর মালিক রুকু মিয়া সাংবাদিকদের জানান, আমাদের নামে মামলা থাকায় আমরা বাড়ী থেকে পালিয়ে অন্যত্র রাত কাটাই। গভীর রাতে কে বা কাহারা আমার বসত ঘরের চারিদিক দিয়ে আগুন দিয়ে ঘরটি সম্পূর্নরুপে জ্বালিয়ে দেয়। এতে আমার ঘরে থাকা ২টি চৌকি, ২টি খাট, ২টি সুকেস, লেপ তোষক, ধান চাউল সহ আনুসাঙ্গীক মালামাল সহ প্রায় ৪ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে। রুকু মিয়ার স্ত্রী মমতাজ বেগম

জানান, আমাদের সাথে আমাদের মামাতো ভাইয়ের দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছে। সে তার লোকজন দিয়ে পরিকল্পিত ভাবে গভীর রাতে আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয়। এছাড়াও আমাদের মামাতো ভাই থেকে আমি ৮ বছর পূর্বে বাড়ীটি বন্ধক রেখে ১ লক্ষ টাকা আনি সে এই ঘটনাটি তার লোকজন দিয়ে করাতে পারে বলে তার দাবী। বাড়ীর লোকজন জানান, আমাদের পড়নের কাপড় ছাড়া আমাদের আর কোন সহায় সম্বল নাই। ঘরে থাকা ধান চাউল সহ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। আমাদের এক মাত্র অভলম্বন হল এই বাড়ীটি। আমরা এখন খোলা আকাশের নিচে থাকা ছাড়া আর কোন উপায় নাই। খবর পেয়ে ৬ মার্চ মাধবপুর ইউপি চেয়ারম্যান সুলতান আহম্মেদ ঘটনাস’ল পরিদর্শন করেন # মাহমুদা সরকার জেমী, ব্রা‏হ্মণপাড়া # ॥

ব্রা‏হ্মণপাড়ায় মুক্তি সংঘ গোল্ডকাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

5 মার্চ
কুমিল্লার ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলার মধ্য শিদলাই ফোরকানিয়া মাদরাসা সংলগ্ন মাঠে ৩ মার্চ মুক্তি সংঘ টি-২০ গোল্ডকাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। মধ্য শিদলাই শেখ রাসেল স্মৃতি সংঘ বনাম মধ্য শিদলাই বন্ধু মহল ক্লাবের অংশগ্রহনে উক্ত খেলায় প্রধান অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক মসিউল আলম সোহাগ, সভাপতিত্ব করেন সহিদুল হক মেম্বার, বিশেষ অতিথি ছিলেন আলাউদ্দিন রিপন, আ: মতিন, ইদ্রিস মোল্লা, মনিরুল ইসলাম সরকার, গোলাম মোস্তফা, কবির আহাম্মদ সরকার, আবু মুছা মোল্লা, শিমূল, সাহেদ সরকার, ছাদেকুল আমীন, বিল্লাল হোসেন সরকার, রুমেল সরকার

প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কামরুল হাসান সোহেল। নির্ধারিত বিশ ওভারের খেলায় প্রথমে মধ্য শিদলাই বন্ধু মহল ক্লাব ব্যাট করে ২০ ওভার ৫ উইকেটে ১৩৮ রান করে। জবাবে শেখ রাসেল স্মৃতি সংঘ ১৭ ওভার ৩ উইকেটে ১৪১ রান করে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। এর মধ্যে বিজয়ী দলের শিমূল একা ৩৭ রান করে ম্যান অব দি ম্যাচ নির্বাচিত হয়। পরে বিজয়ী দলের ক্যাপ্টেন ছালেহ আহম্মেদ ও রানারআপ দলের ক্যাপ্টেন শরীফ সহ সকল খেলোয়ারগণ আমন্ত্রীত অতিথিদের কাছ থেকে পুরস্কার গ্রহণ করেন।